১৫ই মে থেকে যে পরিবর্তন আসছে হোয়াটসঅ্যাপে

বুধবার, ফেব্রুয়ারি 24 2021
১৫মে’র পরে কি কার্যকারিতা হারাবে হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট?


গ্রাহক অসন্তোষের মুখে ইতিপূর্বে হোয়াটসঅ্যাপের পরিবর্তিত নীতিমালা সাময়িকভাবে স্থগিত করা হয়। তবে ফেসবুকের মালিকানাধীন হোয়াটসঅ্যাপ এবার পুনরায় তারিখ বেঁধে দিয়েছে নতুন এই প্রাইভেসি পলিসি বাস্তবায়নের। ব্যবহারকারী যদি হোয়াটসঅ্যাপ এর নতুন 'গোপনীয়তা নীতি' গ্রহণ না করে সেক্ষেত্রে ব্যবহার যথেষ্ট সীমাবদ্ধ হয়ে যাবে ১৫ মে থেকে। সেক্ষেত্রে ব্যবহারকারী ম্যাসেজ পড়তে ও পাঠাতে পারবে না। কয়েক সপ্তাহের জন্য শুধু ফোন কল গ্রহণ ও নোটিফিকেশন দেখা যাবে।

কি আছে এই পলিসি তে? ব্যাক্তিগত বার্তার মত ব্যবসা সংক্রান্ত ম্যাসেজ গুলো শুধু প্রেরক এবং প্রাপকের আর সীমাবদ্ধ থাকছে না। হোয়াটসঅ্যাপ এর ব্যবসায়িক ম্যাসেজ গুলোর তথ্য ফেসবুক সার্ভারে সংরক্ষিত থাকে যা থেকে পরবর্তীতে বিজ্ঞাপন প্রদর্শনে ব্যব‌হার করা হয়। ইতিপূর্বে ২০১৬ সালে হোয়াটসঅ্যাপ ফোন নাম্বারের মত ব্যক্তিগত তথ্য তার প্যারেন্ট কোম্পানি ‘ফেসবুক’ এ শেয়ার করেছিল। তাই কিছু ব্যবহারকারী মনে করেন, এই নতুন নীতিতে তাদের ব্যাক্তিগত বার্তার গোপনীয়তা নাও থাকতে পারে।

এই নতুন পলিসি ৮ ফেব্রুয়ারী তে আসার কথা থাকলেও এটা ১৫ মে পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হয়েছে। হোয়াটসঅ্যাপ পলিসির ব্যাখ্যা দিয়ে একটি ব্যানার অ্যাপে যুক্ত করা হবে, যাতে গ্রাহক মনে কোন বিভ্রান্তি সৃষ্টি না হয়।সেক্ষেত্রে ১২০ দিন পরেও পলিসি মেনে না নিলে অ্যাকাউন্ট অকার্যকর হয়ে যেতে পারে বলে জানা গেছে।
share on