ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট গতির তালিকায় তলানিতে বাংলাদেশ

শনিবার, সেপ্টেম্বর 05 2020
ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট গতির তালিকায় বাংলাদেশ ১৮৪ তম
a1networkbd


ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট গতির হিসাবে বিশ্বের ২২১টি দেশের মধ্যে ১৮৪তম অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। দক্ষিণ এশিয়ার উন্নয়নশীল এই দেশটির ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সেবা ব্যাবহারে গ্রাহক পর্যায়ে ডাউনলোডের গড় গতি তিন দশমিক দুই এমবিপিএস। এছাড়াও বিশ্বের সর্বোচ্চ গতির ইন্টারনেট সেবা রয়েছে ইউরোপের ক্ষুদ্র দেশ লিশটেনস্টাইনে, যা গড়ে প্রায় ২৩০এমবিপিএস। দেশটিতে মাত্র ৩ মিনিটেরও কম সময়ে একটি ৫ গিগাবাইট ছবি ডাউনলোড সম্পন্ন হয়। আর সর্বনিন্ম গতি আফ্রিকার দেশ দক্ষিন সুদানের যেখানে একটি ৫ গিগাবাইট ছবি ডাউনলোড সম্পন্ন হতে সময় নেয় প্রায় ২০ ঘন্টা। সম্প্রতি যুক্তরাজ্যের বিখ্যাত ইন্টারনেট গবেষনা সংস্থা ক্যাবলের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত জরিপের তথ্যে এসব জানা যায়। প্রতিষ্ঠানটির মতে, ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট গতির বিবেচনায় দক্ষিণ এশিয়ায় বাংলাদেশের অবস্থান ষষ্ঠ। সূত্র বলছে, বাংলাদেশের ৫০ হাজার স্বতন্ত্র আইপি এড্রেসসহ সর্বমোট চার লক্ষ সত্তর হাজার গ্রাহকের ডাউনলোড গতি পর্যালোচনা করে প্রাপ্ত ফলাফলের ভিত্তিতে এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্যাদি প্রকাশিত হয়েছে। এই সমীক্ষা বলছে, বাংলাদেশে বর্তমানে একটি ৫ গিগাবাইটের ছবি ডাউনলোড হতে গড়ে সাড়ে তিন ঘন্টারও বেশী সময় নেয়।

গুগলসহ বেশ কয়েকটি মার্কিন বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচালিত এম-ল্যাবের সর্বশেষ জরিপেও মোট ২২১টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ১৮৪। আফ্রিকা অঞ্চলের সিয়েরা লিওন, নাইজেরিয়া এবং মালির মতো অনেক অনুন্নত দেশেও বাংলাদেশের চেয়ে ইন্টারনেটের গড় গতি বেশি। ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট গতির দিক থেকে দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলে নেপাল, ভুটান, মালদ্বীপ, শ্রীলঙ্কা এবং পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত বাংলাদেশের চেয়ে অনেকটাই এগিয়ে রয়েছে। এ তালিকায় এমন অধ:পতন দেখে দেশের ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার এই রিপোর্টের বিশ্বাসযোগ্যতা নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন। তিনি বলেন, ‘আমি বুঝতে পারছি না তারা কিভাবে নেপাল এবং ভুটানের নিচে রেখেছে আমাদের?’ দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে ইন্টারনেটের গতি ভালো নয় বলেও যোগ করেন তিনি। মোস্তফা জব্বার আরো বলেন, “করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আগে গ্রামাঞ্চলে ইন্টারনেট ব্যবহার করা হত না। কিন্তু গত সাত মাস ধরে শহর এবং গ্রামাঞ্চলে ইন্টারনেট আমাদের জীবনের একটি প্রধান অংশ হয়ে উঠেছে।“ আগামী বছরের শেষ নাগাদ দেশের সবগুলো উপজেলাকে ফাইবার অপটিক কেবলের অধীনে সংযুক্ত করার পর গ্রামীণ মানুষ শহুরে মানুষের মত ইন্টারনেটের সমান গতি পাবে বলে জানান মন্ত্রী।
share on